MS Dhoni : নিজের উইকেট-কিপিং দক্ষতার রহস্য ফাঁস করলেন এমএস ধোনি, বললেন….

0
28
MS Dhoni : MS Dhoni's masterclass on unorthodox wicketkeeping :
MS Dhoni : MS Dhoni's masterclass on unorthodox wicketkeeping : "Why do I need to receive the ball when I can snatch it ?"

এমএস ধোনি’কে বিশ্বের অন্যতম সেরা উইকেট-কিপার হিসাবে (MS Dhoni) বিবেচনা করা হয়, তাই এখনও ঋষভ পন্ত বা দীনেশ কার্তিক কোনও ভুল করলেই, ক্রিকেট ভক্ত এবং বিশেষজ্ঞ’রা প্রাক্তন ভারত অধিনায়কের অনুপস্থিতি’কে বারবার টেনে আনেন।

যেমন ২০২২ সালের সদ্য সমাপ্ত এশিয়া কাপে শ্রীলঙ্কা’র বিরুদ্ধে পন্ত একটি গুরুত্বপূর্ণ রান আউটের সুযোগ মিস করলে ফের ধোনি’র উদাহরণ টানা হয়েছিল। আবার কার্তিক’কেও এর আগে ঠিক এই একই পরিস্থিতি’র মধ্যে পড়তে হয়েছিল। আসলে ধোনি (MS Dhoni) আন্তর্জাতিক ক্রিকেট থেকে অবসর নেওয়ার পরেও, ভারতীয় দলের সঙ্গে পুরোপুরি রয়ে গিয়েছেন।

কার্যত, রান আউট বা স্টাম্পিংয়ের ক্ষেত্রে ধোনি (MS Dhoni) একটি টেমপ্লেট সেট করেছেন। লিভফাস্ট ইভেন্টে একটি সাম্প্রতিক সাক্ষাৎকারে প্রাক্তন ভারত অধিনায়ক ব্যাখ্যা করেছেন যে, তিনি কীভাবে এই দক্ষতা অর্জন করেছিলেন।

ধোনি জানিয়েছেন যে তিনি স্কুলে পড়ার সময় থেকেই উইকেটকিপিং শুরু করেছিলেন, এবং তার এই দক্ষতা এসেছে সেই সময় থেকেই। তিনি দাবি করেছেন যে, টেনিস বলেই তিনি কিপিংয়ের প্রথম পাঠ নিয়েছিলেন। যেটা তার দক্ষতা বাড়াতে সাহায্য করেছে। (MS Dhoni)

ধোনি বলেছেন,

আমি টেনিস বলে ক্রিকেট খেলা শুরু করেছিলাম। এই বলে উইকেট-কিপিং করার জন্য হাত নরম হওয়া অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। ওখান থেকেই কিন্তু শুরু। হাত শক্ত হয়ে গেলে বল বেরিয়ে যাবে। টেনিস বলে খেলেই চামড়ার বলে উইকেট-কিপিং’য়ের ক্ষেত্রে অনেক সাহায্য পেয়েছি। কিরণ মোরে যখন নির্বাচক ছিলেন, উনি দলের সঙ্গে থাকতেন। উনি আমাকে কিপিং এবং ড্রিল করার সময়ে প্রচুর সাহায্য করেছেন। যেটা আমি খুব পছন্দ করতাম। আমার উইকেট-কিপিং টেকনিক যে আলাদা, সেটা উনি বুঝতেন। আমি একেবারেই কপিবুক স্টাইল মেনে চলা কিপার নই। উনি সেই স্বাধীনতা আমায় দিয়েছিলেন, বলেছিলেন ভুলে যাও কপিবুক।”

আরও পড়ুনঃ India vs Australia 2022 : ” অনেক বড়ো ধন্যবাদ “, খেলা শেষে নাগপুরের মাঠকর্মী’দের প্রশংসায় ভরিয়ে দিলেন হার্দিক পান্ডিয়া 

ধোনি এরপর আরও বলেন,

“বিগত ৫০ বছরেরও বেশি সময় ধরে কিপার’রা একই কাজ করছেন। ওটা আমার বেসিক শেখার বিষয় ছিল। ক্রিকেটে একটা কথা বলা হয়, বল যখন উইকেটের কাছে আসবে তখনই ধরবে। আমার বক্তব্য, বল রিসিভ করারই কী দরকার আছে ? আমরা কিপিংয়ে যে গ্লাভস ব্যবহার করি, সেটি রাবারের, তার মধ্যেও রাবার ও তুলো থাকে। এমনিই নরম। ফলে আমার বল রিসিভ করার প্রয়োজনই নেই। আমি বলটি ছিনিয়ে নিতে পারি। গুরুত্বপূর্ণ বিষয় হল সব বলা ধরা। কোনও কিছু ছাড়া যাবে না। হতেই পারে কারও টেকনিক আলাদা। খুব স্বল্পই ফারাক। একবার যখন কেউ নিজের স্কিলের ব্যাপারে আত্মবিশ্বাসী হয়ে ওঠে, তখন সে পরীক্ষা-নীরিক্ষা করতে থাকে। কিছু আলাদা করা যেতে পারে এই ভেবে।”

প্রসঙ্গত, এমএস ধোনি মোট ৮২৯ টি উইকেট নিয়েছেন। যার মধ্যে ১৯৫ টি স্টাম্পিং রয়েছে, যা এখনও পর্যন্ত কোনও উইকেট-কিপারের দ্বারা সবচেয়ে বেশি স্টাম্পিং করার রেকর্ড। এছাড়াও তিনি সব ফরম্যাটে তৃতীয় সফল উইকেট-কিপার। ‘ক্যাপ্টেন কুল’এর থেকে শুধুমাত্র মার্ক বাউচার (৯৯৮) এবং অ্যাডাম গিলক্রিস্ট (৯০৫) বেশি আউট করেছেন। অর্থাৎ এই তালিকা’র তিনে রয়েছেন ধোনি। (MS Dhoni)

আরও পড়ুনঃ India vs Australia 2022 : বুমরাহ’র নিঁখুত ইয়র্কারে আউট হওয়ার পর প্রশংসা ফিঞ্চের, দেখুন ভিডিও