Mohammed Siraj : ওয়ানডেতে বিশ্বের এক নম্বর বোলার এখন মহম্মদ সিরাজ

0
10
Mohammed Siraj : Mohammed Siraj becomes No.1 bowler in ODIs after sensational outing against NZ
Mohammed Siraj : Mohammed Siraj becomes No.1 bowler in ODIs after sensational outing against NZ

Mohammed Siraj – জস হ‍্যাজেলউড’কে সরিয়ে বিশ্বের এক নম্বর ওয়ানডে বোলার হয়ে উঠলেন আঠাশ বছর বয়সী ভারতীয় পেসার মহম্মদ সিরাজ। এটা ওয়ানডে বিশ্বকাপের বছর, তার আগে ভারতীয় দলের কাছেও এটা অত্যন্ত সুখবর বলে বিচার করা চলে।

২০২০-২০২১ বর্ডার গাভাস্কার ট্রফিতে অসাধারণ টেস্ট পারফরম্যান্স দিয়েছিলেন মহম্মদ সিরাজ (Mohammed Siraj)। বছর তিনেক অপেক্ষার পর ২০২২ সালের ফেব্রুয়ারি মাসে ভারতের ওয়ানডে দলে প্রত‍্যাবর্তন করে মহম্মদ সিরাজ, এরপর থেকে আর ফিরে দেখতে হয়নি তাকে।

প্রত‍্যাবর্তনের পর ২০ টা ওয়ানডে ম‍্যাচ খেলে ৩৮ টা উইকেট নিয়েছেন মহম্মদ সিরাজ।‌ পাওয়ার প্লে বলুন অথবা ডেথ ওভার, রোহিত শর্মার এক জন নির্ভরযোগ‍্য বোলার হয়ে উঠেছেন মহম্মদ সিরাজ (Mohammed Siraj)। জসপ্রীত বুমরাহর অবর্তমানে যে শূন্য স্থান তৈরী হয়েছিল তা ভরাট করে দিয়েছেন সিরাজ। মহম্মদ শামি, জসপ্রীত বুমরাহর সাথে তৃতীয় পেসার হিসেবে এবারের ওয়ানডে বিশ্বকাপে খেলার সম্ভাবনা বেশি সিরাজের।

২০২২ সালে ১৫ ম‍্যাচ খেলে সিরাজের ইকনমি রেট ছিলো ৪.৬১। ২০২৩ সালে ৫ ম‍্যাচ খেলেছিলেন সিরাজ, সেখানে ইতিমধ্যে ১৪ উইকেট নিয়েছেন তিনি।

আরও পড়ুনঃ Women’s Premier Leauge : অবশেষে প্রকাশ‍্যে এলো মেয়েদের আইপিএলের নাম 

ষষ্ঠ ভারতীয় বোলার হিসেবে মহম্মদ সিরাজ (Mohammed Siraj) ওয়ানডে বোলারদের ক্রমতালিকায় শীর্ষ স্থানে উঠে এলেন। তার আগে কপিল দেব, মনিন্দর সিং, অনিল কুম্বলে,‌ রবীন্দ্র জাদেজা এবং জসপ্রীত বুমরাহ এই নজির গড়েন। সিরাজের বর্তমানে রেটিং পয়েন্ট ৭২৯ , দ্বিতীয় স্থানে থাকা হ‍্যাজেলউড এর পয়েন্ট সংখ্যা ৭২৭, তৃতীয় স্থানে আছেন ট্রেন্ট বোল্ট ৭০৮ পয়েন্ট নিয়ে।

সিরাজ ছাড়া আরও এক বোলার ১১ ধাপ উঠে এসেছে,কথা বলছি মহম্মদ শামির, তার স্থান হয়েছে এখন ৩২ নম্বর স্থানে। ১৯ নম্বরে উঠে এসেছেন কূলদীপ যাদব, অন‍্যদিকে ৩৫ নম্বর স্থানে উঠে এসেছেন শার্দুল ঠাকুর।

এরপর জুলাই – আগষ্ট মাসে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে ওয়ানডে সিরিজ খেলবে ভারত।

আরও পড়ুনঃ IND vs NZ 2023 : “নিউজিল্যান্ডকে হারিয়ে ভারতের ওডিআই সিরিজ জয় কে খাটো করে দেখার কোনও মানে নেই” : সঞ্জয় মাঞ্জেরেকার