Indonesian Football Stadium : ভেঙে ফেলা হচ্ছে শতাধিক জীবন কেড়ে নেওয়া অভিশপ্ত ফুটবল স্টেডিয়াম 

0
11
Indonesian Football Stadium : Indonesia to demolish soccer stadium where stampede killed over 130
Indonesian Football Stadium : Indonesia to demolish soccer stadium where stampede killed over 130

চলতি মাসে ক্রীড়া জগতের খবরের শিরোনামে উঠেছিলো ইন্দোনেশিয়া। (Indonesian Football Stadium) একটি ফুটবল ম‍্যাচ চলাকালীন পদপিষ্ট হয়ে মারা গেছিলো ১৩০ এর বেশি মানুষ। সেই অভিশপ্ত স্টেডিয়াম ভেঙে ফেলা হচ্ছে, ইন্দোনেশিয়ার প্রেসিডেন্ট Joko Widodo মঙ্গলবার শপথ নিয়েছেন ফুটবল পাগল দেশের মানুষের জন‍্যে একটা আমূল পরিবর্তনের।

Jokowi – নামে জনপ্রিয় ইন্দোনেশিয়ার প্রেসিডেন্ট। ফিফার প্রেসিডেন্ট Gianni Infantino’র সাথে আলোচনা সেরেছিলেন এদিন, তারপর তিনি বলেছেন, মালাংয়ের Kanjuruhan stadium ভেঙে ফেলা হবে, তৈরী করা হবে ফিফার নিয়ম মেনে। (Indonesian Football Stadium)

গত ১ লা অক্টোবর একটি লিগের ম‍্যাচ চলাকালীন পদপিষ্ট হয়ে শতাধিক ক্রিকেট সমর্থক পদপিষ্ট হয়ে মারা যায়। স্টেডিয়ামে পুলিশ টিয়ার গ‍্যাস চালানোয় এই সমস্যা হয়েছে, জনসমাগম নিয়ন্ত্রন করতে টিয়ার গ‍্যাসের ব‍্যবহার ক‍রা নিষিদ্ধ আছে ফিফার নিয়ম অনুযায়ী।

ইন্দোনেশিয়ার প্রেসিডেন্ট জানিয়েছেন ইনফান্তিনো’র সাথে তার আলোচনা হয়েছে দেশের ক্রীড়া বিভাগ পরিচালন করার ক্ষেত্রে কি বিষয় বদল আনা উচিত, কিভাবে নিয়ন্ত্রণ করা উচিত। (Indonesian Football Stadium)

আরও পড়ুনঃ Harmanpreet Kaur : এই বিশেষ কারণে বিগব‍্যাশ লিগের থেকে নাম প্রত‍্যাহার করলেন হরমনপ্রীত

আগামী বছর অনূর্ধ -২০ বিশ্বকাপ অনুষ্ঠিত হবে ইন্দোনেশিয়ায়। সেই বিষয়টি মাথায় রেখে ইন্দোনেশিয়া এবং ফিফা স্টেডিয়াম দুর্ঘটনা ঘটে যাওয়ার পর একটি জয়েন্ট টাস্কফোর্স গঠন করতে চলেছে। আর তার পর’ই এই মিটিং অনুষ্ঠিত হয় জোকোয়ি এবং ইনফান্তিনো’র মধ্যে।

জোকোয়ি’র সাথে এদিন সংবাদ মাধ‍্যমের সামনে উপস্থিত ছিলেন ইনফান্তিনো। তিনি জানিয়েছেন বর্তমানে এই সাউথ এশিয়ান দেশে ফুটবলার এবং সমর্থক’দের নিরাপত্তার দিকটা খতিয়ে দেখাটাই প্রধান লক্ষ‍্য ফিফার। (Indonesian Football Stadium)

ইন্দোনেশিয়ার প্রেসিডেন্টের হাতে একটি বিশেষ জার্সি তুলে দেওয়া হয়েছে ফিফার তরফে। জানানো হয়েছে আন্তর্জাতিক ফুটবল সংস্থা ইন্দোনেশিয়ার সরকারের সাথে কাজ করবে এবিষয়ে, যাতে সমস্ত স্টেডিয়াম গুলো নিরাপত্তা প্রয়োজনীয় সমস্ত নিয়ম মেনে তৈরী করা হয়, তাহলেই আগামী বছর অনূর্ধ -২০ বিশ্বকাপ ভালো ভাবে আয়োজন করা সম্ভব।

আরও পড়ুনঃ T20 World Cup 2022 : স্কটল্যান্ড’কে হারিয়ে নতুন ‘আইরিশ রুপকথা’র জন্ম দিলো কার্টিস ক‍্যাম্ফার