ENG vs IND: ভারতের বিপক্ষে মাচ জয়ী ইনিংস খেলে বিশেষ কৃতিত্ব অর্জন করলেন রুট

0
14
ENG vs IND: Joe Root Joins Elite Company With 737 Runs In Test Series
ENG vs IND: Joe Root Joins Elite Company With 737 Runs In Test Series

বল হাতে একেবারেই হতশ্রী পারফরম্যান্স ছিলো ভারতীয় বোলার’দের, (ENG vs IND) যার ফলে এজবাস্টনে পুনঃনির্ধারিত পঞ্চম টেস্টের পঞ্চম অর্থাৎ অন্তিম দিনেও ব্রিটিশ বাহিনীর বিপক্ষে রুখে দাঁড়াতে পারেনি তারা। তাই জয়লাভের জন্য ১১৯ রান খুব সহজেই হেসেখেলে কোনো উইকেট না খুঁইয়েই তুলে ফেলে বেয়ারস্টো ও রুটের জুটি।

১৭৩ বলে ১৪২ রান করে অপরাজিত থাকেন প্রাক্তন ইংল্যান্ড অধিনায়ক রুট। অন্যদিকে নিজের দুরন্ত ফর্মে থাকা জনি বেয়ারস্টো অপরাজিত থাকেন ১৪৫ বলে ১১৪ রান করে। যার সৌজন্যে ৭ উইকেটে ম্যাচ জিতে নেয় ইংল্যান্ড। এই জয়লাভের ফলে গত বছর বাতিল হয়া ৫ ম্যাচের টেস্ট সিরিজে, যে সিরিজে ২-১ ব্যাবধানে এগিয়ে ছিলো ভারত, সেই সিরিজেই ২-২ ব্যাবধানে সমতায় ফেরে স্টোকসের দল। (ENG vs IND)

এদিন ভারতের বিপক্ষে নিজের দুর্দান্ত ম্যাচ জয়ী ইনিংস খেলে এক বিশেষ মাইলফলক অর্জন করলেন ইংল্যান্ডের প্রাক্তন অধিনায়ক। এদিন ১৪২ রানের অপরাজিত ইনিংস খেলার মধ্যে দিয়ে, ভারতের বিপক্ষে সদ্য ড্র হওয়া টেস্ট সিরিজে মোট ৭৩৭ রান পূরণ করলেন জো রুট, সাথে সাথে গড়লেন ভারতের বিপক্ষে টেস্ট সিরিজে দ্বিতীয় সর্বাধিক রান করার নজির। (ENG vs IND)

এক্ষেত্রে রুটের আগেই আছেন প্রাক্তন কিংবদন্তি ইংলিশ খেলোয়াড় গ্রাহাম গুচ। তিনি ১৯৯০ সালে ভারতের বিপক্ষে ৩ ম্যাচের টেস্ট সিরিজে ১২৫.৩৩ গড়ে ৩ টি সেঞ্চুরি ও ২ টি হাফ সেঞ্চুরিতে ৭৫২ রান করে রেকর্ড গড়েছিলেন। সেখানে ৫ টেস্টে ৪ টি সেঞ্চুরি এবং ১ টি হাফ সেঞ্চুরিতে ১০৫.২৮ গড়ে রুট  করেছেন ৭৩৭ রান।

এছাড়াও রুট ভারতের বিপক্ষে সিরিজে ৭৩৭ রান করার মধ্যে দিয়ে, কোনও টেস্ট সিরিজে সর্বাধিক রান করা ইংল্যান্ডের পঞ্চম ব্যাটসম্যান হয়েছেন। এক্ষেত্রে রুটের আগে আরও চার ব্যাটসম্যান আছেন, তাদের মধ্যে থেকে তালিকার শীর্ষে আছেন ওয়াল্টার হ্যামন্ড, তিনি ১৯২৮/২৯ সালের অ্যাশেজে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে ৯০৫ রান করেছিলেন। (ENG vs IND)

এবার আসা যাক ম্যাচ প্রসঙ্গে, ভারত বনাম ইংল্যান্ডের পুনঃনির্ধারিত পঞ্চম টেস্টের চতুর্থ দিনের খেলা শেষেই এজবাস্টন টেস্টের (ENG vs IND) ভাগ্য নির্ধারণ হয়ে গিয়েছিলো। তখনই জো রুট ও জনি বেয়ারস্টো’র পার্টনারশিপ, ম্যাচের রাশ ভারতের হাত থেকে কেড়ে নিয়েছিলো। পঞ্চম দিনে বাকি ছিলো শুধু ফলাফল ঘোষণার অপেক্ষা। আর আদতে হলোও তাই। পুনঃনির্ধারিত শেষ টেস্টের শেষ দিনে ভারত’কে সহজেই হারিয়ে দিলো বেন স্টোকসের দল। জো রুট ও জনি বেয়ারস্টো’র জোড়া শতরানের উপর ভর করেই ভারত’কে ৭ উইকেটে হারালো ব্রিটিশ বাহিনী।

আরও পড়ুনঃ ENG vs IND: ভারত ইংল্যান্ড’কে ৪৫০ রানের টার্গেট দিক এটাই চেয়েছিলেন অধিনায়ক বেন স্টোকস !

কার্যত, চতুর্থ দিনের খেলা শেষে ইংল্যান্ডের জয়ের জন্য দরকার ছিলো আর মাত্র ১১৯ রান। হাতে ছিলো সাত উইকেট। ক্রিজে ছিলেন দুই অভিজ্ঞ ব্যাটসম্যান রুট ও বেয়ারস্টো। আর তাদের দাপটেই প্রথম সেশনেই খেলা শেষ করে জয়লাভ করে নেয় ব্রিটিশ দল। ২৭১ রানের পার্টনারশিপ গড়ে দল’কে সহজ জয় এনে দেন রুট ও বেয়ারস্টো। ১৪২ রানে অপরজিত থাকেন রুট ও ১১৪ রানে অপরাজিত থাকেন বেয়ারস্টো। এই জয়ের ফলে গত বছরের অসমাপ্ত টেস্ট সিরিজ, ২-২ ব্যাবধানের সমতায় শেষ হলো। (ENG vs IND)

প্রসঙ্গত, ২৫৯ রানে ৩ উইকেট খুঁইয়ে পঞ্চম দিনের খেলা শুরু করেন রুট ও বেয়ারস্টো। তখন ৭৬ রানে অপরাজিত ছিলেন রুট ও ৭২ রানে অপরাজিত ছিলেন বেয়ারস্টো। পঞ্চম দিনের সকাল থেকে অনেক বেশি আগ্রাসী মেজাজে ব্যাট করতে দেখা যায় তাদের। সেই অর্থে ভারতীয় বোলার’রা কোনও ভাবেই তাদের কোনও সমস্যাতেই ফেলতে পারেননি। একের পর এক দুর্ধর্ষ শট মারতে থাকেন জো রুট ও জনি বেয়ারস্টো। তার মধ্যেই নিজেদের শতরানও পূরণ করে ফেলেন তারা। শেষ পর্যন্ত সহজেই তারা দল’কে জয়ের লক্ষ্যে পৌছে দেন। (ENG vs IND)

প্রসঙ্গত, এজবাস্টন টেস্টের প্রথম তিন দিন চালকের আসনে ছিলো ভারতীয় ক্রিকেট দল। ম্যাচে টস জিতে বোলিং করার সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন ইংল্যান্ড অধিনায়র বেন স্টোকস। প্রথমে ম্যাচে ব্যাট করে একসময় মেন ইন ব্লু ৯৮ রানে ৫ উইকেট হারিয়ে দারুন বিপাকে পড়েছিলো। সেইখান থেকে দল’কে বিপদ থেকে টেনে তোলেন ঋষভ পন্থ ও রবীন্দ্র জাদেজা। তাদের ২২২ রানের পার্টনারশিপ ও জোড়া সেঞ্চুরিতে ভর করে প্রথম ইনিংসে ৪১৬ রান করে ভারত।

প্রথম ইনিংসে রান তাড়া করতে নেমে ২৮৪ রানে অলআউট হয়ে যায় ইংল্য়ান্ড। শতরান করে একা লড়াই করেন জনি বেয়ারস্টো। প্রথম ইনিংসে ১৩২ রানের লিড ভারত’কে অতিরিক্ত ভরসা যোগায়। এরপর দ্বিতীয় ইনিংসে ভারত মাত্র ২৪৫ রান করেই গুটিয়ে যায়। সেখানে পুজারা করেন সর্বচ্চো ৬৬ রান ও পন্থ করেন ৫৭ রান। জয়ের জন্য বুমরাহ’র দল রুটদের টার্গেট দেয় ৩৭৮ রানের।

জবাবে ৩৭৮ রানের টার্গেট তাড়া করতে নেমে  প্রথমে ইংল্যান্ডের দুই ওপেনার অ্যালেক্স লিস (৫৬) ও জ্যাক ক্রলি (৪৬) শতরানের পার্টনারশিপ করেন। এরপর ৩টি উইকেট নিলেও ভারত কোনও চাপ সৃষ্টি করতে পারেনা ইংল্য়ান্ডের উপর। সেখান থেকে রুট-বেয়ারস্টো’র জুটি দল’কে জয় এনে দেন। ইংল্য়ান্ডের ক্রিকেট ইতিহাসে এটাই সবথেকে বড় রান চেজ করে জয়। (ENG vs IND)

আরও পড়ুনঃ ENG vs IND: টেস্ট হারায় বুমরাহ’দের উপর বেজায় খাপ্পা প্রাক্তন ভারতীয় খেলোয়াড়’রা, ট্যুইট করে নিজেদের ক্ষোভ উগ্রে দিলেন তারা