Emami East Bengal : কনস্টানটাইনের সাথে মতের অমিল বিনো জর্জের ! জানুন বিস্তারিত

0
1363
Emami East Bengal Bino George disagrees with Stephen Constantine
Emami East Bengal Bino George disagrees with Stephen Constantine

একটা দল সফল হতে গেলে নিজেদের মধ্যে বোঝাপড়া’টা খুবই শক্ত হওয়ার প্রয়োজন, সেটা দলের ফুটবলার হোক কিংবা দলের (Emami East Bengal) কোচিং স্টাফ। কিন্তু এর তারতম‍্য দেখা দিলেই বিপদ, যার সম্প্রতি আঁচ পাওয়া গেছে ইমামি ইস্টবেঙ্গলের অন্দরমহলে।

লাল হলুদ দলের (Emami East Bengal) হেড কোচ স্টিফেন কনস্ট‍্যানটাইনের সহকারী হিসেবে এই মরশুমে ইস্টবেঙ্গলে যোগ দিয়েছেন সন্তোষট্রফি জয়ী কেরালার কোচ বিনো জর্জ। জর্জের মতো এক ফুটবল মস্তিষ্ক’কে দলে পেয়ে দারুণ খুশি হয়েছিলেন ক্লাব সমর্থক’রা।

তবে সব সময় হেড কোচের সাথে সহকারী কোচের মতের মিল থাকবে, সেটা কখনও সম্ভব নয়। এবার ইস্টবেঙ্গলের (Emami East Bengal) ক্ষেত্রে সেই বিষয়টি প্রকাশ‍্যে এসেছে। খোদ বিনো জর্জ নিয়ে এই ঘটনাটি সকলের নজরে এনেছেন।

সম্প্রতি এক ইস্টবেঙ্গলের সমর্থক’দের সাথে ক্লাব নিয়ে সোশ্যাল মিডিয়ায় কথা বলছিলেন বিনো জর্জ। কথায় কথায় সেই সমর্থক জর্জ’কে জিজ্ঞাসা করেন, কেনো জিজো জোসেফ’কে দলে নেওয়া হলোনা। যার জবাবে জর্জ বলেন বয়সের কারণে কনস্টানটাইন কেরালার এই ফুটবলার’কে দলে নিতে চাইছেনা। এরপর সেই সমর্থক বলেন সুমিত পাসি ২৮ বছর বয়সে দলে সুযোগ পাচ্ছেন, যেখানে জোসেফের বয়স মাত্র ২৩।

এরপর জর্জ বলেন ম‍্যানেজমেন্টের এবিষয়ে সম্মতি নেই এবং লাল হলুদের (Emami East Bengal) সহকারী কোচ নিজেই জোসেফের নাম সুপারিশ করেছিল।

পরবর্তী সময়ে সেই চ‍্যাটের স্ক্রিনশট ভাইরাল হয় সোশ্যাল মিডিয়ায়। এরপর থেকেই লাল হলুদ ব্রিগেডের অন্দরমহলের এই মতের অমিল নিয়ে প্রশ্ন উঠছে। প্রশ্ন উঠছে ম‍্যানেজমেন্ট এবং হেডকোচের কাছে সহকারী কোচের বক্তব্য কতোটা গুরুত্ব পাচ্ছে তা নিয়েও।

প্রসঙ্গত, বৃহস্পতিবার রাজারহাটের মাঠে কলকাতা লিগের অঙ্গ হিসেবে এরিয়ানের সাথে একটি প্রস্তুতি ম‍্যাচ খেলে নিলো লাল হলুদ ব্রিগেড।

প্রস্তুতি ম‍্যাচ হলেও দুই দলের লড়াই ছিলো চোখে পড়ার মতো। এরিয়ান ৩ বিদেশি ফুটবলার নিয়ে খেলতে নেমেছিলো এদিন। প্রথমার্ধের খেলা গোল শূন্য ভাবে শেষ হয়, এসময় ইস্টবেঙ্গলের  গোলকিপারের দায়িত্ব সামলেছিলেন পবন কুমার, এছাড়া বাদবাকি পজিশনের দায়িত্ব সামলেছিলেন নবি হুসেন খান, লাল চু‌ংগা, ইভান গঞ্জালেজ, জেরি, সুমিত পাসি, সৌভিক চক্রবর্তী, মোবাসির রহমান, নাওরেম, ক্লেইটন এবং সুহের। অর্থাৎ লাল হলুদ কোচ কনস্টানটাইন প্রথমার্ধে শক্তিশালী একটা প্রথম একাদশ’কে খেলতে নামিয়েছিলো।

আরও পড়ুনঃ India vs Australia 2022 : ক‍্যামেরুনের ক‍্যাচ মিসের পর রান আউটে ফিরিয়ে, ভুল শুধরে নিলেন কোহলি, দেখুন ভিডিও

তবে কাঙ্খিত গোল আসার না কারণে দ্বিতীয়ার্ধে দল বদলে ফেলেন লাল হলুদের  কোচ কনস্টানটাইন। গোলকিপার হিসেবে আসেন নবীন সিং, এছাড়া আসেন অঙ্কিত মুখার্জি, কিরিয়াকু, সার্থক, প্রীতম, অনিকেত, আলেক্স লিমা, অমরজিত সিং কিয়াম, তুহিন দাস, এলিয়ান্দ্রো এবং হাওকিপ। 

ম‍্যাচের ৭৭ মিনিটে দুরপাল্লার গোলে ইস্টবেঙ্গলকে এগিয়ে দেন আলেক্স লিমা। এর মিনিট তিনেক পর পেনাল্টি থেকে গোল করে লাল হলুদের তরফে ব‍্যবধান বাড়ান এলিয়ান্দ্রো। এরপর ম‍্যাচে শেষ গোলটি করেন হাওকিপ।

শোনা যাচ্ছে ইস্টবেঙ্গলের কাছে খবর ছিলো না কলকাতা ফুটবল লিগে ২ জন বিদেশি’কে নিয়ে খেলতে হবে। তাদের অনুশীলনে এই পরিকল্পনা নিয়ে কোনও উদ্যোগ নেওয়া হয়নি, তাই দুই বিদেশির কম্বিনেশনে কি ভাবে সাজানো যায় দল, সেটা দেখে নেওয়ায় উদ্দেশ্য ছিলো লাল হলুদ কোচ কনস্টানটাইনের।

আরও পড়ুনঃ India vs Australia 2022 : বিধ্বংসী ইনিংস খেলে সিরিজে রোহিত সমতায় ফেরালো ভারত’কে